আজকের আসরের নামাজের শেষ সময় এবং আসরের নামাজ মোট কত রাকাত

আসরের নামাজ কয় রাকাত

আসরের নামাজ কয় রাকাত
আসরের নামাজ মোট কত রাকাত

আসরের নামাজ কয় রাকাত:

৮ রাকাত হল আছরের নামায। এর মধ্যে ৪ রাকাত সুন্নত এবং ৪ রাকাত ফরজ। আসরের নামাজ কয় রাকাত।

সুন্নত নামাজ

প্রথম দুই রাকাত সুন্নত মুয়াক্কাদা, অর্থাৎ এগুলো পড়া উত্তম।
দ্বিতীয় দুই রাকাত সুন্নত গাইরে মুয়াক্কাদা, অর্থাৎ এগুলো পড়া ঐচ্ছিক।
ফরজ নামাজ

  • আসরের ফরজ নামাজ চুয়াত্তর তাকবিরের উপর আদায় করা হয়।
  • প্রতি রাকাতে দুই তাকবিরের পর রুকু করা হয়।
  • প্রতি রাকাতে দুই তাকবিরের পর সাজদা করা হয়।
  • মুসাফির অবস্থায় আসরের ফরজ নামাজকে দুই রাকাত করে পড়া যায়।

আজকের আসরের নামাজের শেষ সময়

আসরের নামাজের শেষ সময় হল সূর্য অস্ত যাওয়ার আগের শেষ মুহুর্তে। আসরের নামাজের সময় শেষ হয়ে যাওয়ার পর আসরের নামাজ পড়া মাকরুহ।

আসরের নামাজের শেষ সময়ের নির্ধারণের ক্ষেত্রে বিভিন্ন ফিকহের মাযহাব ভিন্ন ভিন্ন মত পোষণ করে। তবে, প্রধানত চারটি মাযহাবের মধ্যে আসরের নামাজের শেষ সময় নিম্নরূপ:

হানাফি মাযহাব: আসরের নামাজের শেষ সময় হল সূর্য অস্ত যাওয়ার আগের শেষ মূহুর্তে।
মালেকী মাযহাব: আসরের নামাজের শেষ সময় হল সূর্য যখন লাল রং ধারণ করে এবং পূর্বাকাশে পশ্চিমাকাশের চেয়ে বেশি উঁচু থাকে।
শাফিঈ মাযহাব: আসরের নামাজের শেষ সময় হল সূর্য যখন লাল রং ধারণ করে এবং পূর্বাকাশে পশ্চিমাকাশের সমান উঁচু থাকে।
হাম্বলী মাযহাব: আসরের নামাজের শেষ সময় হল সূর্য যখন লাল রং ধারণ করে এবং পূর্বাকাশে পশ্চিমাকাশের চেয়ে কম উঁচু থাকে।

আসরের চার রাকাত সুন্নত নামাজের ফজিলত

আসরের চার রাকাত সুন্নত নামাজের অনেক ফজিলত রয়েছে। হাদিস শরীফে বর্ণিত আছে,
রাসূলুল্লাহ (সা.) আরও বলেছেন, “যে ব্যক্তি আসরের ফরজ নামাজের আগে চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ে, আল্লাহ তাআলা তার উপর রহম করবেন।” (আবু দাউদ, হাদিস: ১২৭১)

রাসূলুল্লাহ (সা.) আরও বলেছেন, “আসরের ফরজ নামাজের আগে চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়ার কারণে আল্লাহ তাআলা তার দুনিয়া ও আখিরাতের সকল বিপদ-আপদ থেকে রক্ষা করবেন।” (আবু দাউদ, হাদিস: ১২৭২)

আরো পড়ুঃ মাগরিবের নামাজ কয় রাকাত মাগরিবের নামাজের পর কোন সূরা পড়তে হয়

আসরের চার রাকাত সুন্নত নামাজের ফজিলতগুলো নিম্নরূপ:

জান্নাত লাভের সুযোগ: আসরের চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়লে আল্লাহ তাআলা জান্নাতে একটি ঘর নির্মাণ করবেন।
রহমত লাভের সুযোগ: আসরের চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়লে আল্লাহ তাআলা রহম করবেন।
বিপদ-আপদ থেকে মুক্তি লাভের সুযোগ: আসরের চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়লে আল্লাহ তাআলা দুনিয়া ও আখিরাতের সকল বিপদ-আপদ থেকে রক্ষা করবেন।
সুতরাং, আসরের চার রাকাত সুন্নত নামাজ পড়া প্রত্যেক মুসলমানের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

আরো পড়ুনঃ যোহরের নামায কত রাকাত। ফজরের শেষ সময় কখন?। জোহরের নামাজ কিভাবে পড়তে হবে?

আসরের চার রাকাত ফরজ নামাজের নিয়ত
আসরের চার রাকাত ফরজ নামাজের নিয়ত
আসরের সুন্নত নামাজের নিয়ত

নিয়ত: ক্বেবলার দিকে মুখ করে দাঁড়িয়ে নিম্নরূপ নিয়ত করা:

“নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তা’আলা আরবা’আ রাকাআতি সালাতিল আসরি আদায়ান মুতাওয়াক্কিফান বিহায়াল্লাহি তা’আলা ওয়া তাক্বাল্লুহু মিন্নি বিহাক্কি মায়ুফুয়াতু আলায়হি মুহাম্মাদুন সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম।”

অর্থ: “আমি আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য চার রাকাত আসরের ফরজ নামাজ আদায়ের নিয়ত করছি। আল্লাহ তাআলা আমাকে কবুল করুন, যাঁর উপর মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে ফরজ করা হয়েছে।”

উচ্চারণ: “নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তা’আলা আরবা’আ রাকাআতি সালাতিল আসরি আদায়ান মুতাওয়াক্কিফান বিহায়াল্লাহি তা’আলা ওয়া তাক্বাল্লুহু মিন্নি বিহাক্কি মায়ুফুয়াতু আলায়হি মুহাম্মাদুন সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। আল্লাহু আকবার।”

অর্থ: “আল্লাহু আকবার। আমি আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য চার রাকাত আসরের ফরজ নামাজ আদায়ের নিয়ত করছি। আল্লাহ তাআলা আমাকে কবুল করুন, যাঁর উপর মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে ফরজ করা হয়েছে। আল্লাহু আকবার।”

নিয়তের পর তাকবিরের মাধ্যমে নামাজ শুরু করা।

আরো পড়ুনঃ আসরের নামাজের সময় শুরু এশার বেতের নামাজের নিয়ত

এশার নামাজের সময় শুরু ও শেষ