শবে বরাত কত তারিখে হবে ও শবে বরাত নিয়ে কিছু আলোচনা

শবে বরাত কত তারিখে

শবে বরাত কত তারিখে

শবে বরাত ২০২৪ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি রবিবার দিবাগত রাতে পালিত হবে।

কারণ:

শবে বরাত হিজরি শাবান মাসের ১৪ ও ১৫ তারিখের মধ্যবর্তী রাতে পালিত হয়।
২০২৪ সালে ১৪ শাবান রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারি সূর্যাস্তের পর শুরু হবে এবং ১৫ শাবান সোমবার সূর্যাস্ত পর্যন্ত চলবে।
সূর্যাস্তের পর থেকেই শবে বরাতের আমল শুরু করা যাবে।

মনে রাখবেন:

শবে বরাতের তারিখ চাঁদ দেখার উপর নির্ভর করে।
জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটি ১১ ফেব্রুয়ারি রবিবার সন্ধ্যায় শাবান মাসের চাঁদ দেখা করবে।
চাঁদ দেখা গেলে শবে বরাত ২৫ ফেব্রুয়ারি রবিবার দিবাগত রাতে পালিত হবে।
চাঁদ না দেখা গেলে শবে বরাত ২৬ ফেব্রুয়ারি সোমবার দিবাগত রাতে পালিত হবে।

শবে বরাতের দোয়া

শবে বরাতের দোয়া

শবে বরাত একটি বিশেষ রাত, যা আল্লাহর রহমত ও ক্ষমার রাত। এ রাতে বান্দারা আল্লাহর কাছে দোয়া-প্রার্থনা করে থাকেন।

কিছু গুরুত্বপূর্ণ দোয়া:

সাধারণ দোয়া:

اللَّهُمَّ إِنِّي أَسْأَلُكَ مِنْ فَضْلِكَ وَكَرَمِكَ وَرَحْمَتِكَ مَا لا يَقْدِرُ عَلَيْهِ أَحَدٌ إِلا أَنْتَ

উচ্চারণ:

আল্লাহুম্মা ইন্নি আসআলুকা মিন ফাযলিকা ওয়া কারামিকা ওয়া রাহমাতিকা মা লা ইয়াকদিরু ‘আলাইহি আহাদুন ইল্লা আন্তা

অর্থ:

হে আল্লাহ! আমি তোমার কাছে তোমার ফজল, তোমার কারম ও তোমার রহমতের সেই জিনিসগুলো চাই যা তোমার ছাড়া আর কেউ দিতে পারে না।

ক্ষমা চাওয়ার দোয়া:

اللَّهُمَّ اغْفِرْ لِي ذَنْبِي كُلَّهُ دِقَّهُ وَجَلَلَهُ وَأَوَّلَهُ وَآخِرَهُ وَسِرَّهُ وَعَلَانِيَتَهُ

উচ্চারণ:

আল্লাহুম্মা اغْفِرْ لِي ذَنْبِي كُلَّهُ دِقَّهُ وَجَلَلَهُ وَأَوَّلَهُ وَآخِرَهُ وَسِرَّهُ وَعَلَانِيَتَهُ

অর্থ:

হে আল্লাহ! আমার সমস্ত গুনাহ মাফ করে দাও, ছোট-বড়, প্রথম-শেষ, গোপন-প্রকাশ সব গুনাহ।

আরো জানুনঃ শবে বরাতের নামাজের নিয়মশবে বরাতের আমল

শবে বরাত এর ফজিলত

শবে বরাত এর ফজিলত

শবে বরাতের রাতে করণীয়:

কুরআন তেলাওয়াত: এ রাতে কুরআন তেলাওয়াত করার ফজিলত অনেক বেশি।
দোয়া-প্রার্থনা: এ রাতে আল্লাহর কাছে ক্ষমা, জান্নাত, রিজিক, সুস্থতা, পরিবারের জন্য দোয়া করা উচিত।
তাসবিহ বলা: এ রাতে তাসবিহ বলা ও দরুদ শরীফ পাঠের ফজিলত অনেক বেশি।
দান-সদকা: এ রাতে দান-সদকা করার ফজিলত অনেক বেশি।

শবে বরাতের রাতে বর্জনীয়:

পাপাচার: এ রাতে পাপাচার করা থেকে বিরত থাকা উচিত।
অসৎ কাজ: এ রাতে অসৎ কাজ করা থেকে বিরত থাকা উচিত।
মিথ্যা বলা: এ রাতে মিথ্যা বলা থেকে বিরত থাকা উচিত।
অন্যায় আচরণ: এ রাতে অন্যায় আচরণ করা থেকে বিরত থাকা উচিত।
শেষ কথা:

শবে বরাত আল্লাহর রহমত ও ক্ষমার রাত। এ রাতে আমাদের উচিত আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাওয়া, তাঁর রহমতের জন্য প্রার্থনা করা এবং নেক কাজের মাধ্যমে রাতটিকে কাটানো।
তবে এই রাতে আমল নিয়ে বেশি বাড়া বাড়ি করা ঠিক নয়।

আশা করি আপনাদের জন্য এই তথ্য উপকারী আসবে।

আরো জানুনঃ শবে বরাত কি বিদআতশবে বরাতের ইতিহাস

7 thoughts on “শবে বরাত কত তারিখে হবে ও শবে বরাত নিয়ে কিছু আলোচনা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *