সূর্য ওঠার কত মিনিট পর নামাজ পড়া যায় এবং দ্বিপ্রহরের সময় কখন?সূর্য ওঠার কত মিনিট পর নামাজ পড়া যায় এবং দ্বিপ্রহরের সময় কখন?
ফজরের নামাজের পর দোয়া সমূহ

ফজরের নামাজের দোয়া সমূহ

ফজরের নামাজর পর দোয়া সমূহ

ফজরের নামাযে অনেক ফজিলত রয়েছে। এবং ফজরের নামাযের পর অনেক আমল রয়েছে। ফজরের নামাযের পর এবং বাকি সব নামাযের পর “সুবহানাল্লাহ” [৩৩] বার “আলহামদু লিল্লাহ”[৩৩] বার “আল্লাহু আকবার” [৩৪] বার পড়বেন।

আর যে আমল গুলো করবেন।

  • আয়াতুল কুরসি পাঠ করা।
  • আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের দোয়া।
  • সাইয়্যিদুল ইস্তিগফার পাঠ করা।
  • জাহান্নাম থেকে মুক্তির দোয়া করা।
  • রোগব্যাধি থেকে রক্ষার দোয়া।
  • সুরা ইয়াসিন পড।

সূর্য ওঠার কত মিনিট পর নামাজ পড়া যায়?

সূর্য ওঠার পর সাধারণত ২০ মিনিট পর থেকে নামাজ পড়া যায়। তবে, সূর্য ওঠার পর হলুদ আলো দূর না হওয়া পর্যন্ত নামাজ পড়া থেকে বিরত থাকা উচিত। এ সময় নামাজ পড়া নিষিদ্ধ।

ইশরাকের নামাজ সূর্য ওঠার পর পড়া হয়। ইশরাকের নামাজের সময় নির্ধারণ করা হয় না। তবে, সূর্য ওঠার পর ২০ থেকে ২৫ মিনিট পর এই নামাজ পড়া উত্তম।

অন্যদিকে, ফজরের নামাজের সময় সূর্যোদয়ের আগে। সূর্যোদয়ের পর ফজরের নামাজ পড়া যাবে না।

সুতরাং, সূর্য ওঠার পর ২০ মিনিট পর থেকে ফজরের নামাজ ছাড়া অন্য যেকোনো নামাজ পড়া যায়।

দ্বিপ্রহরের সময় কখন?

দ্বিপ্রহরের সময় কখন?


দ্বিপ্রহরের সময় হল সূর্য মাথার উপরে থাকার সময়। এই সময় সূর্যের রশ্মি লম্বভাবে পৃথিবীতে পড়ে। দ্বিপ্রহরের সময় নামাজ পড়া নিষিদ্ধ। দ্বিপ্রহরের সময় নির্ধারণের জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি রয়েছে। এর মধ্যে একটি পদ্ধতি হল, সূর্য যখন তার দৈনিক পথের মধ্যভাগে থাকে, তখনই দ্বিপ্রহরের সময়। আরেকটি পদ্ধতি হল, সূর্যের ছায়া যখন তার নিজস্ব ছায়ার সমান হয়, তখনই দ্বিপ্রহরের সময়।

বাংলাদেশের ক্ষেত্রে, দ্বিপ্রহরের সময় সাধারণত দুপুর ১২টা থেকে ১ টার মধ্যে হয়ে থাকে। তবে, অক্ষাংশের পার্থক্যের কারণে এই সময়ের কিছুটা হেরফের হতে পারে। দ্বিপ্রহরের সময় নামাজ পড়া নিষিদ্ধ হওয়ার কারণ হল, এই সময় সূর্যের প্রখরতা সবচেয়ে বেশি থাকে। এই সময় নামাজ পড়ার ফলে শরীরের ক্ষতি হতে পারে।

হাদিসে এসেছে,

আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রা. থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “তোমরা দ্বিপ্রহরের সময় নামাজ পড়ো না। কারণ, এ সময় শয়তান তার সবচেয়ে নিকটবর্তী হয়।” (মুসলিম)

অন্য হাদিসে এসেছে,
আবু হুরাইরা রা. থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “তোমরা দ্বিপ্রহরের সময় নামাজ পড়ো না। কারণ, এ সময় সূর্য তার কক্ষপথে মাথার উপরে থাকে এবং শয়তান তার সবচেয়ে নিকটবর্তী হয়।” (বুখারি, মুসলিম)

সুতরাং, দ্বিপ্রহরের সময় নামাজ পড়া থেকে বিরত থাকা উচিত।

ফজরের নামাজ কত সময় পর্যন্ত পড়া যায়?

ফজরের নামাজের সময় সূর্যোদয়ের আগে। সূর্যোদয়ের পর ফজরের নামাজ পড়া যাবে না। ফজরের নামাজের সময়ের নির্ধারণের জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি রয়েছে। এর মধ্যে একটি পদ্ধতি হল, সুবহে সাদিকের সময় থেকে সূর্যোদয়ের আগের সময়। সুবহে সাদিক হল সেই সময় যখন আকাশে হালকা আলো দেখা যায় এবং রাতের অন্ধকার দূর হতে থাকে।

বাংলাদেশের ক্ষেত্রে, ফজরের নামাজের সময় সাধারণত ভোর ৪টা থেকে ৫টার মধ্যে হয়ে থাকে। তবে, অক্ষাংশের পার্থক্যের কারণে এই সময়ের কিছুটা হেরফের হতে পারে।

সুতরাং, ফজরের নামাজ সূর্যোদয়ের আগে যেকোনো সময় পড়া যায়। তবে, সুবহে সাদিকের সময় থেকে সূর্যোদয়ের আগের সময় পড়া উত্তম।

হাদিসে এসেছে,

আবদুল্লাহ ইবনে মাসউদ রা. থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যে ব্যক্তি সূর্যোদয়ের আগে ফজরের নামাজ পড়ে, তার নামাজ কবুল হবে না।” (বুখারি, মুসলিম)

সুতরাং, সূর্যোদয়ের পর ফজরের নামাজ পড়া থেকে বিরত থাকা উচিত। যদি কেউ ভুলবশত সূর্য উঠার পর ফজরের নামাজ পড়ে ফেলে, তাহলে তাকে অবশ্যই তা কাযা আদায় করতে হবে।

আরো জানতে ক্লিক করোনঃ যোহরের নামায আসরের নামাজের সময় শুরু মাগরিবের নামাজ কয়

মাগরিবের নামাজের পর কোন সূরা পড়তে হয় 

নামাজের সুন্নত ও ফরজ কয়টি?

নামাজের সুন্নত

  • ফজরের নামাজে: দুই রাকাত সুন্নত।
  • যোহরের নামাজে: চার রাকাত সুন্নত, তবে চার রাকাত সুন্নত না পড়ে দুই রাকাত পড়াও বৈধ।
  • আসরের নামাজে: চার রাকাত সুন্নত।
  • মাগরিবের নামাজে: তিন রাকাত সুন্নত।
  • ইশার নামাজে: চার রাকাত সুন্নত, তবে দুই রাকাত পড়াও বৈধ।

নামাজের ফরজ

  • ফজরের নামাজে: দুই রাকাত।
  • যোহরের নামাজে: চার রাকাত।
  • আসরের নামাজে: চার রাকাত।
  • মাগরিবের নামাজে: তিন রাকাত।
  • ইশার নামাজে: চার রাকাত।


সুতরাং, প্রতিটি নামাজে দুই রাকাত করে সুন্নত রয়েছে। তবে যোহরের নামাজে চার রাকাত সুন্নত পড়ার পর মাঝখানে বসা সুন্নত। এছাড়াও, ফজরের নামাজের আগে দুই রাকাত, মাগরিবের নামাজের পর তিন রাকাত এবং এশার নামাজের পর দুই রাকাত নফল নামাজ সুন্নত।নামাজের সুন্নত ও ফরজগুলো যথাযথভাবে পালন করা প্রত্যেক মুসলিমের জন্য আবশ্যক। নামাজের সুন্নতগুলো পালন করলে নামাজের সওয়াব আরও বৃদ্ধি পায়।

আরো জানোনঃ যোহরের নামায এশার নামাজের সময় শুরু ও শেষ 

ফজরের নামাজের পর সুন্নত পড়া যাবে কি?

ফজরের নামাজের পর সুন্নত পড়া যাবে না।ফজরের নামাজের সুন্নত নামাজ ফজরের ফরজ নামাজের আগে পড়া হয়। ফজরের ফরজ নামাজ পড়ার পর সুন্নত নামাজ পড়ার কোনো বিধান নেই।

আবু সাঈদ খুদরি রা. থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “ফজরের নামাজের পর সুন্নত নামাজ নেই। তবে, যে ব্যক্তি তা পড়তে চায়, সে দুটি রাকাত পড়তে পারে।” (নাসায়ি)

সুতরাং, ফজরের নামাজের পর সুন্নত নামাজ পড়া থেকে বিরত থাকা উচিত। তবে, কেউ যদি তা পড়তে চায়, তাহলে দুটি রাকাত পড়তে পারে।

6 thoughts on “ফজরের নামাজের দোয়া সমূহ এবং সূর্য ওঠার কত মিনিট পর নামাজ পড়া যায়?”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *